Nomita

রত্নগর্ভা নমিতা…

এই মহীয়সী নারীর জন্ম ১৯৩০ সালের ঢাকা জেলার অদূরে বেলিস্বর গ্রামে।

ছোটবেলা থেকেই তিনি ছিলেন অনবদ্য ও অনান্য সাধারন মেয়েদের থেকে কিছুটা আলাদা। অত্যন্ত গুণী ও মেধাবী হিসেবে নিজেকে প্রমান করেছেন জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে।

সবাই যখন ঘর-সংসার ও সাজগোঁজ নিয়ে ব্যস্ত, তখন সে পড়ালেখা ও অন্যান্য কাজে মনোনিবেশ  করে। কিন্তু বেশিদিন তার সেই সুযোগ হয়নি। খুব অল্প বয়সে তার বিয়ে হয় মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়ার বিশিষ্ট সমাজসেবক তরিন্ময় দত্তের সাথে।

জীবনসঙ্গি হিসেবে জীবনের নানা প্রতিকূল পরিস্থিতি সামাল দিয়ে ৫ ছেলে ও ৪ মেয়েকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলেছিলেন। এভাবেই তিনি অক্লান্ত পরিশ্রম ও মেধা দিয়ে আস্তে আস্তে এগিয়ে গেছেন স্বমহিমায়।

পঞ্চাশের দুর্ভিক্ষ, ছিয়াত্তরের মন্বন্তর, বন্যা, জলোচ্ছ্বাস এবং ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধের  বহু ইতিহাসের জলন্ত সাক্ষী নমিতা দত্ত।

একাধারে তিনি ছিলেন উদ্যোক্তা, সফল গৃহিণী, নানা গুনে গুণান্বিত অনন্যা এবং সর্বোপরি একজন সফল মা।

তার নিজ গ্রামে সবার কাছেই শ্রদ্ধার পাত্র ছিলেন এবং অনেক মহিলাদের কাছে নিজেকে অনুকরণীয় হিসেবে নিজেকে তুলে ধরেছেন।

তার ছেলে ও মেয়েরা এক একজন নানা পেশায় জড়িত এবং এই সাফল্যের পিছনে অন্যতম অবদান হিসেবে তাদের মাকে তারা স্মরণ করেন অকপটে ।

বর্তমানে তার দুই মেয়ে ও এক ছেলে ভারতে এবং তিন ছেলে ও দুই মেয়ে বাংলাদেশে অবস্থান করছেন।

এই রত্নগর্ভা মহীয়সী নারী ২০১৫ সালের ১১ই মার্চ মৃত্যুবরন করেন।




Leave a Reply